শুক্রবার

১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
spot_img

আমেরিকাকে হুঁশিয়ারি কিউবার

বিদেশ ডেস্ক

‘‘কিউবায় বিক্ষোভ দেখে ফ্লোরিডায় বসে যারা অশান্তির দিন গুনছে, তাদের উদ্দেশ্য সফল হবে না। আমেরিকার একদল রাজনীতিবিদ আর সন্ত্রাসবাদীকে হতাশই হতে হবে।’’

কিউবার স্যান্টিয়াগো ডি কিউবা শহরে বিক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে সরাসরি এই বার্তা দিলেন কিউবার রাষ্ট্রপতি মিগুয়েল ডিয়াজ ক্যানেল। তিনি বলেছেন, ‘‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অমানবিক অবরোধের কারণেই সঙ্কটে পড়ছেন কিউবার মানুষ। কিউবার মানুষের প্রতি বিন্দুমাত্র মমত্ব থাকলে মার্কিন প্রশাসন অর্থনৈতিক বাণিজ্যিক অবরোধ জারি রাখত না। কিউবার জনতার কাছে আমরা সেকথাই বলছি।’’

স্যান্টিয়াগো ডি কিউবায় বিক্ষোভ হয় বিদ্যুৎ এবং খাদ্য সংরক্ষণে সমস্যার কারণে। দীর্ঘসময় বিদ্যুৎ ছিল না এই শহরে। নাগরিকদের একাংশ পথে নামেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা থেকে বিশ্বময় প্রচারও শুরু হয়ে গিয়েছে। কিউবার বিপ্লব সঙ্কটে, সঙ্কটে সমাজতন্ত্র- দেওয়া হচ্ছে এই বার্তা। বহুজাতিক সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে প্রচার চলছে সোশাল মিডিয়ায়। আক্রমণের লক্ষ্য করা হচ্ছে সমাজতন্ত্রকে।

ক্যানেল বলেছেন, ‘‘সমাজতান্ত্রিক কিউবা এবং কমিউনিস্ট পার্টি কাজ এখন সঙ্কটে থাকা মানুষের সঙ্গে আরও গভীর বার্তালাপ চালানো। তাঁদের কথা শোনা। তাঁদের কাছে বলা সঙ্কট কেন। গণহত্যার উদ্দেশ্যে ৬৪ বছর ধরে অবরোধ চলেছে। কিউবা হারেনি। আজকেও হারানো যাবে না। ফ্লোরিডায় বসে অস্থিরতা তৈরিতে যারা দিনরাত খরচ করছেন তাদের আশা অধরাই থেকে যাবে।’’

আন্তর্জাতিক মঞ্চে কিউবার ওপর অবরোধ চাপানোর জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকেই সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে বারবার। রাষ্ট্রসঙ্ঘে কিউবার পাশে দাঁড়িয়ে বহু দেশ এই অবরোধের নিন্দা করেছে। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার সাম্রাজ্যবাদী চরিত্রের কারণেই সমাজতান্ত্রিক কিউবাকে ভাতে মারার চেষ্টায় বিরামহীন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’’

ক্যানেল বলেছেন, ‘‘কিউবাকে দুর্বল করতে, কিউবার জনগণের মাথায় সঙ্কটের বোঝা চাপিয়ে দিতে সম্ভাব্য সব কৌশল নিয়েছে আমেরিকা। ‘মিয়ামি মাফিয়ারা’ বারবার পরাজিতও হয়েছে।’’

spot_img

এ বিভাগের আরও সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img