মঙ্গলবার

১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
spot_img

সিগারেটের প্রতি শলাকায় সতর্কবার্তা

ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর—এ কথা কমবেশি সবারই জানা। এরপরও সিগারেটের প্যাকেটের গায়ে সতর্কতামূলক এই বার্তা জুড়ে দেওয়া হয়। এবার কানাডা সরকার নতুন একটি উদ্যোগ নিয়েছে। সে অনুযায়ী, শুধু প্যাকেটেই নয়, প্রতিটি সিগারেটেরও গায়ে লেখা থাকছে এই সতর্কবার্তা।

চলতি বছরের মে মাসে কানাডা সরকার সিগারেটের গায়ে স্বাস্থ্যসংক্রান্ত সতর্কতামূলক বার্তা জুড়ে দেওয়ার নতুন এই নিয়ম চালুর ঘোষণা দেয়। গতকাল মঙ্গলবার (১ আগস্ট) থেকে দেশটিতে এই নিয়ম কার্যকর হয়েছে। বিশ্বে প্রথম দেশ হিসেবে কানাডা এই নিয়ম চালু করল।

এই নিয়মের আওতায় সিগারেটের গায়ে ‘ধূমপান পুরুষত্বহীনতার কারণ’, ‘ধূমপানে ক্যানসার হয়’, ‘প্রতি টানে বিষ গ্রহণ’—এমন নানা ধরনের বার্তা লেখা থাকছে।

আশা করা হচ্ছে, এক বছরের মধ্যে কিং সাইজ বা বড় আকারের সব সিগারেটে এসব বার্তা যুক্ত করা সম্ভব হবে। আর নিয়মিত আকারের সব সিগারেটে এসব বার্তা যুক্ত শুরু হবে ২০২৫ সালের শুরুর দিকে।

এ বিষয়ে কানাডার সাবেক মন্ত্রী ক্যারোলিন বেনেত বলেন, সিগারেটের গায়ে জুড়ে দেওয়ায় এসব সতর্কবার্তা এড়িয়ে যাওয়া যাবে না। এসব ছবিসংবলিত বার্তা ধূমপানের কঠিন পরিণতির কথা মনে করিয়ে দেবে।

এর আগে ২০০০ সালে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে কানাডা সিগারেটের প্যাকেটের গায়ে স্বাস্থ্যসংক্রান্ত সতর্কবার্তা যুক্ত করার নিয়ম চালু করে। পরে বিভিন্ন দেশে এই নিয়ম চালু হয়। যদিও এত কিছুর পরও ধূমপানের ক্ষত কমানো সম্ভব হচ্ছে না। কানাডা সরকারের তথ্য অনুযায়ী, প্রতিবছর দেশটিতে ধূমপান ও তামাকের কারণে ৪৮ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়।

spot_img

এ বিভাগের আরও সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img