ঢাকা, বাংলাদেশ ।

শুক্রবার, আগস্ট ১২, ২০২২

পোশাকে উৎসবের আমেজ

গ্রীষ্মের উষ্ণতা বিবেচনায় সোলাস্তা ঈদ আয়োজনে আরামদায়ক কাপড় নির্বাচনকে প্রাধান্য দিয়েছে। এ জন্য শাড়িতে ডিজিটাল সাবলিমেশন প্রিন্ট টেকনিক ব্যবহার করা হয়েছে কটন ও শিফনের ওপর। মেয়েদের লং ও শর্ট দুই ধরনের কুর্তিতে স্ক্রিনপ্রিন্ট, এমব্রয়ডারি ও কারচুপির কাজে অলংকরণ করা হয়েছে।

পোশাকে উৎসবের আমেজ
এন্ডি কাপড় পাঞ্জাবির জন্য সব সময়ই স্পেশাল। নিজেদের তাঁতে বোনা এন্ডি কাপড় রং করা হয়েছে ২০২২ সালের কালার ট্রেন্ড অনুসরণ করে। এর ওপর ফিট ঠিক রেখে এমব্রয়ডারি, কারচুপিসহ নানান ধরনের এমবেলিশমেন্ট করা হয়েছে ডিজাইনার দিয়ে। ফেব্রিকনির্ভর পাঞ্জাবি করা হয়েছে উন্নতমানের ভারতীয়, কোরীয় ও জাপানি কাপড় ব্যবহার করে। এ ক্ষেত্রে নেকলাইন, প্লাকেট ও স্লিভ করা হয়েছে ডেকোরেটিভ। সম্পূর্ণ সুতির ওপর নান্দনিক ডিজিটাল প্রিন্ট করে তৈরি করা হয়েছে আরেক ধরনের পাঞ্জাবি।
ফরমাল শার্ট, ক্যাজুয়াল শার্ট ও ফতুয়ায় রং, কাপড়ের ধরন ও ফিট ক্রেতাদের আকর্ষণের মূল বিষয়। কোরীয় কাপড় দিয়ে করা পুরুষদের এসব ওয়েস্টার্ন টপ আরামদায়কই নয়, ট্রেন্ডি কালেকশনও বটে।

পোলো শার্ট আর টি-শার্টে সোলাস্তা ব্যতিক্রম শুরু থেকেই। বিশ্বখ্যাত পিমা কটনের টি-শার্ট পাওয়া যাবে ভি গলায় অজস্র মনোরম রঙে। ভিসকস কাপড়ে করা আরও টি-শার্ট আছে পুরুষ ও মহিলা উভয় গ্রুপেই। শতভাগ পলিয়েস্টার কাপড়ে সাবলিমেশন প্রিন্ট করা পোলো শার্ট পাওয়া যাচ্ছে ৩০টির বেশি রঙের। আছে ভিসকসের লেগিংসসহ মেয়েদের সব ধরনের স্ট্যান্ড অ্যালোন বটম।

পোশাকে উৎসবের আমেজ
চিনোস আর ডেনিম রয়েছে পুরুষ ও মহিলা উভয় গ্রুপেই। অভিজ্ঞ ফিট টেকনিশিয়ান দিয়ে বানানো এসব প্যান্টে কাপড়, ডিজাইন ও ওয়াশ এফেক্টের সঙ্গে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে এ দেশের মানুষের উচ্চতা ও দেহকাঠামো বা গড়নকে। ফিট নিয়ে তাই আর ভাবনা নেই।

সর্বোপরি কাপল কালেকশন ছাড়াও একই সঙ্গে ম্যাচিং শাড়ি, পাঞ্জাবি, পোলো শার্ট ও শিশুদের পোশাক আছে সোলাস্তার ঈদ সংগ্রহে।

আরও সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ